স্বাস্থ্য

কিভাবে লম্বা হওয়া যায়; দ্রুত লম্বা হবার উপায়

কিভাবে লম্বা হওয়া যায় কিংবা খুব দ্রুত কিভাবে হাইট বাড়ানো যায় এ নিয়ে মানুষের জানার প্রচুর আগ্রহ রয়েছে। বাস্তব জীবনের প্রায় অনেক ক্ষেত্রেই লম্বা মানুষের কদর একটু বেশী। তাছাড়া হাইট মানুষের এটিটিউট বাড়িয়ে তোলে। সাধারণত কে কতটুকু লম্বা হবে, কার গায়ের রং কেমন হবে তা জেনেরিকভাবে হয়ে থাকে, অর্থাৎ বাবা মায়ের “ডি এন এ” এর উপর ভিত্তি করে হয়ে থাকে। তবে পরিবেশ, খাদ্যাভ্যাস, এবং লাইফ স্টাইল মানুষের হাইট এ র উপর ইফেক্ট ফেলে।

মানুষ কত বছর পর্যন্ত লম্বা হয়?

কিভাবে লম্বা হওয়া যায়

সাধারণত মানুষ ২৫ বছর পর্যন্ত লম্বা হতে পারে। তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে মানুষ ৩০ বছর বয়স পর্যন্ত লম্বা হয়। বয়স ত্রিশ বছর পার হবার পর সাধারণত আর লম্বা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে না। তবে আধুকিক বিজ্ঞান এমন কিছু আবিষ্কারের পথে রয়েছে, যার মাধ্যমে বয়স ত্রিশ পার হবার পরেও লম্বা হওয়া সম্ভব হবে।

কিভাবে তাড়াতাড়ি লম্বা হওয়া যায়?

প্রাকৃতিক কয়েকটি উপায় ফলো করলে এবং লাইফ স্টাইলে কিছুটা পরিবর্তন করলে খুব দ্রুত লম্বা হওয়া সম্ভব। প্রাকৃতিক উপায়ে দ্রুত লম্বা হতে চাইলে নিচের বিষয়গুলো ফলো করুন।

কিভাবে লম্বা হওয়া যায়

প্রাকৃতিক কয়েকটি উপায় ফলো করলে এবং লাইফ স্টাইলে কিছুটা পরিবর্তন করলে খুব দ্রুত লম্বা হওয়া সম্ভব। প্রাকৃতিক উপায়ে দ্রুত লম্বা হতে চাইলে নিচের বিষয়গুলো ফলো করুন।

১. খাদ্যাভ্যাস পরিপর্তন করুন

খাদ্যাভ্যাস এবং ডায়েট ব্যালেন্স করা আপনার লম্বা হওয়ার জন্য খুব জরুরী। কিছু খাবার প্রকৃতিকভাবে লম্বা হতে সাহায্য করে যেমনঃ তাজা ফল, তাজা সবজি, পর্যাপ্ত পানি পান করা, প্রয়োজনীয় প্রটিন গ্রহণ করা, এবং ফ্রেশ দুধ খাদ্য তালিকায় রাখা।
দ্রুত প্রাকৃতিক উপায়ে লম্বা হতে কিছু খাবার আপনার খাদ্য তালিকা থেকে বাদ দিন যেমনঃ চিনি, ফ্যাটযুক্ত খাবার, স্যাচুয়েরেটেড ফ্যাট ইত্যাদী।

২. পর্যাপ্ত পরিমান ঘুমান

লম্বা হওয়ার পর্যাপ্ত পরিমানে ঘুম খুবই প্রয়োজনীয়। রাতে যতটা সম্ভব তাড়াতাড়ি ঘুমিয়ে পরুন। রাতে দেরীতে ঘুমালে গ্রোথ হরমন ইফেক্টেড হয়, যার ফলে প্রাকৃতিক উপায়ে দ্রুত লম্বা হবার চান্স অনেকটা ক্ষতিগ্রস্থ হয়। সুতরাং প্রাকৃতিক উপায়ে তাড়াতাড়ি লম্বা হতে হলে পর্যাপ্ত ঘুম অবশ্যই প্রয়োজন।
বয়সভেদে কার জন্য কতটুকু ঘুম প্রয়োজন, তা নিচে দেওয়া হলোঃ

*৩ মাসের চেয়ে কম বয়সী শিশুদের জন্য ১৪ থেকে ১৭ ঘন্টা ঘুমের প্রয়োজন
*৩ মাস থেকে ১১ মাসের শিশুদের জন্য ১২ থেকে ১৭ ঘন্টা ঘুমের প্রয়োজন
*১ থেকে ২ বছরের শিশুদের জন্য ১১ থেকে ১৪ ঘন্টা ঘুমের প্রয়োজন
*৩ থেকে ৫ বছরের শিশুদের জন্য ১০ থেকে ১৩ ঘন্টা ঘুমের প্রয়োজন
*৬ থেকে ১৩ বছরের কিশোর/ কিশোরীদের জন্য ১১ ঘন্টা ঘুমের প্রয়োজন
*১৪ থেকে ১৭ বছরের টিনেজারদের জন্য ১০ ঘন্টা ঘুমের প্রয়োজন
*১৮ থেকে ৬৫ বছরের মানুষদের জন্য ৯ ঘন্টা ঘুমের প্রয়োজন
*৬৫ বছরের উর্ধে বয়ষ্কদের জন্য ৭-৮ ঘন্টা ঘুমের প্রয়োজন

প্রয়োজনীয় সাপলিমেন্ট গ্রহন করুন

আপনি যদি পূর্ব থেকেই হাইট নিয়ে চিন্তিত থাকেন, তাহলে ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করে চেক করে দেখুন যে, আপনার গ্রোথ হরমনে কোন কমতি আছে কিনা, প্রয়োজনে ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী লম্বা হবার জন্য প্রয়োজনীয় সাপলিমেন্ট গ্রহণ করুন।

এক্টিভ থাকুন

প্রাকৃতিকভাবে লম্বা হবার জন্য সর্বদা নিজেকে এক্টিভ রাখুন। দুশ্চিন্তা, অতিরিক্ত টেনশন করা থেকে বিরত থাকুন। অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা এবং টেনশন প্রকৃতিকভাবে লম্বা হতে বাধাগ্রস্থ করে।

নিয়মিত ব্যায়াম করুন

নিয়মিত নির্দিষ্ট সময়ে এক্সারসাইজ করলে HGH (ওজন নিয়ন্ত্রক হরমন) বাড়তে সাহায্য করে। তাই লম্বা হতে চাইলে নিয়মিত এক্সারসাইজ করতে পারেন। লম্বা হবার জন্য যেসব এক্সাসাইজ করতে হয়, তা এই পোষ্টের নিচে আমি দিয়ে দিবো।

পর্যাপ্ত পানি পান করুন

স্বল্প পরিমানে পানি করা স্বাস্থ্যের জন্য তো খারাপ বটেই, পাশাপাশি অল্প পরিমানে পানি পান করা লম্বা হবার পথে বাধা হয়ে দাড়ায়। তাই প্রাকৃতিকভাবে লম্বা হতে চাইলে পর্যাপ্ত পরিমান পানি পান করুন।

যোগ ব্যায়াম করুন

লম্বা হবার জন্য বিশেষ কিছু যোগ ব্যায়াম আছে, প্রতিদিন অন্তত ১০ মিনিট করে যোগ ব্যায়াম ট্রাইক করতে পারেন।
যোগ ব্যায়াম মানুষিক দুঃশ্চিন্তা কমায়, এবং দ্রুত লম্বা হতে সহায়তা করে।

একলকোহল এড়িয়ে চলুন

এলকোহল পান করার ফলে HGH হরমন ক্ষতিগ্রস্থ হয়। তাই গ্রোথ বাড়াতে চাইলে এলকোহল বা মদ্যপান এড়িয়ে চলুন।

সিগারেটকে না বলুন

সিগারেটের মধ্যে প্রায় ১ হাজার প্রকারের ক্ষতিকর রাশায়নিক পদার্থ থাকে। শরীরের এমন কোন অংশ নেই, যেখানে সিগারেট ক্ষতি করতে পারেনা। পাশাপাশি সিগারেট লম্বা হতে বাধা সৃষ্টি করে। তাই সিগারেট এড়িয়ে চলুন।

লম্বা হবার জন্য বিশেষি কিছু ব্যায়াম

এখন আমি আপনাদেরকে বেশ কিছু ব্যায়াম শিখিয়ে দিচ্ছি, যা বাস্তব জীবনে প্রাক্টিস করে আপনি আপনার গ্রোথকে বাড়াতে পারেন। তাহলে চলুন তিনটি ব্যায়ম দেখে নেই, যা লম্বা হতে সাহায্য করবে।

উচ্চা বৃদ্ধির ব্যায়াম বা লম্বা হওয়ার ব্যায়াম চিত্র - লম্বা হবার উপায় ও ব্যায়াম
লম্বা হবার ব্যায়াম এর চিত্র

১. প্রথমে সোজা হয়ে দাঁড়ান তারপর হাঁটু না ভেঙেই আপনার পা স্পর্শ করার চেষ্টা করুন। এতে করে আপনার উরু এবং পিঠসহ অন্যান্য পেশীগুলো সম্প্রসারিত হবে এবং এখানের রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি করবে। এই ব্যায়ামের মাধ্যমে আপনার হাঁটুর পেশিগুলো ম্যাসাজও করতে পারেন। একদম টান হয়ে নিজের পায়ের আঙ্গুল ধরার চেষ্টা করুন, কিন্তু প্রাথিম পর্যায়ে খুব বেশি চাপ দেওয়ার দরকার নেই।

২. লম্বা হবার জন্য এটি বেশ উপকারী একটি ব্যায়াম। এই ব্যায়ামটি আপনার হাতের শক্তিও বৃদ্ধি করবে। শরীরের উপরের অংশের পেশী প্রসারিত করতে এটি বেশ কাজের একটি ব্যায়াম। কয়েকটি উপায়ে আপনি এ ব্যায়ামটি করতে পারেন। পোলে দু’পা জড়িয়ে হাত নিচের দিকে দিয়ে এই এক্সারসাইজ করতে পারেন। এতে আপনার পায়ের শক্তি বাড়বে এবং আপনি এ ব্যায়াম প্রতিদিন করলে আপনার শরীরের অতিরিক্ত ফ্যাট ও দূর হয়ে যাবে। এবং উচ্চতাও ধীরে ধীরে বৃদ্ধি পাবে।

৩. প্রথমে হাঁটু ভাঁজ করুন। এরপর কাঁধ বরাবর দূরত্ব রেখে পা দুটো আলাদা করুন। এবার পায়ের উপর চাপ দিয়ে কোমর ও নিতম্ব উঠানোর চেষ্টা করুন। এসময় পিঠ সোজা রাখবেন। ধীরে ধীরে নিঃশ্বাস নেওয়ার চেষ্টা করুন। এ ব্যায়ামটি কয়েকবার পুনরাবৃত্তি করুন। ব্যায়ামটি আপনার লম্বা হতে সাহায্য করবে। (Tips to Be taller before 18)

প্রিয় ভিউয়ারঃ এই পোষ্ট সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্ট করুন। ভালো সাড়া পেলে আপনাদের জন্য আবার ফিরে আসবো নতুন কোন আর্টিকেল নিয়ে। ততক্ষণ ভালো থাকুন। সুস্থ থাকুন। সেরা ব্লগ এর সাথেই থাকুন।

রিলেটেড কিওয়ার্ডঃ

  • লম্বা হওয়ার সহজ উপায়
  • লম্বা হওয়ার ব্যায়াম
  • লম্বা হওয়ার উপায়
  • লম্বা হওয়ার দোয়া
  • লম্বা হওয়ার ঔষধ
  • কিভাবে লম্বা হওয়া যায়
  • লম্বা হওয়ার ব্যায়াম চিত্রসহ
  • লম্বা হওয়ার আমল
  • কি খেলে লম্বা হওয়া যায়

Source
Healthline Wikihow

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button